সোমবার, ২৩শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ৫ই এপ্রিল, ২০২০ ইং
শিরোনাম
  • **** চলমান করোনভাইরাস সঙ্কটের কারণে ২০২০ সালের ১২ ই মে নির্ধারিত সমস্ত নির্বাচন মেল-ইন ভোট দিয়ে পরিচালনার আদেশ দিয়ে বৃহস্পতিবার, একটি নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছেন গভর্নর ফিল মারফি** প্যাটারসনে গত ২৪ ঘন্টায় করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা চার থেকে দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেয়ে নয়টিতে উন্নীত হয়েছে** বৃহস্পতিবার ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, দেশটিতে প্রতি ঘন্টায় ৫০ জন লোক করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। আর প্রতি ১০ মিনিটে মারা যাচ্ছেন একজন** ভারতের আলোচিত ‘নির্ভয়া’ মামলার চার আসামি মুকেশ সিং, পবন গুপ্তা, বিনয় শর্মা ও অক্ষয়কুমার সিংয়ের ফাঁসি শুক্রবার** বিদেশফেরত প্রত্যেক যাত্রীকে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন বাংলাদেশের হাইকোর্ট** মহামারী রূপে ছড়িয়ে পড়া নতুন করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট অর্থনৈতিক সংকটের কারণে প্রায় আড়াই কোটি মানুষ চাকরি হারাতে পারে বলে মনে করছে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা** নিউইয়র্ক সিটি প্রথম অস্থায়ী করোনাভাইরাস পরীক্ষা কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে স্ট্যাটেন্ট আইল্যান্ডে। আমেরিকার ন্যাশনাল গার্ড প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি স্থাপন করেছে এবং কেন্দ্রটি চালানোর জন্য প্রস্তুতি নিয়েছে**
বুধবার, জানুয়ারি ১, ২০২০ ১০:৪৪ অপরাহ্ণ | আপডেটঃ জানুয়ারি ০১, ২০২০ ১১:৩৩ অপরাহ্ণ
A- A A+ Print

ইরাকে আরও সৈন্য পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

ইরাকে মার্কিন দূতাবাসে হামলা-ভাংচুর এবং নিরাপত্তা চৌকিতে অগ্নিসংযোগের পর দেশটিতে আরও সৈন্য পাঠানোর ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার ইরাকে তাৎক্ষণিকভাবে আরও সাড়ে সাতশ’ সৈন্য মোতায়েন করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

এক বিবৃতিতে প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘মার্কিন স্থাপনা ও কর্মকর্তাদের ওপর হুমকির মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে যথোপযুক্তভাবেই এই অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করা হচ্ছে।’

নিরাপত্তার জন্য পাঠানো অতিরিক্ত সেনারা কয়েক দিনের মধ্যেই দেশটিতে পৌঁছাবেন বলে জানিয়েছে পেন্টাগন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মার্কিন কর্মকর্তা জানান, প্রাথমিকভাবে কুয়েত থেকে সাড়ে সাতশ’ সেনা ইরাকে পাঠানো হবে। সামনের দিনগুলোতে ওই অঞ্চলে চার হাজারের মতো সৈন্য পাঠানোরও প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

ইরাকে এখনি পাঁচ হাজারের বেশি মার্কিন সেনা অবস্থান করছে।

রোববার ইরাকে ইরান-সমর্থিত মিলিশিয়াদের ওপর মার্কিন বিমান হামলায় ২৫ জন নিহতের জেরে মঙ্গলবার মার্কিন দূতাবাসে হামলা চালায় ক্ষুব্ধ একদল বিক্ষোভকারী।

মঙ্গলবার বিক্ষোভকারীরা মার্কিন দূতাবাস লক্ষ্য করে পাথর ছুড়েছে। দূতাবাসের নিরাপত্তা কর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষেও জড়িয়েছিল বলে জানিয়েছে রয়টার্স। দ্বিতীয় দিনের মতো বুধবারও দূতাবাসের সামনে যুক্তরাষ্ট্রের পতাকায় আগুন লাগায় এবং দূতাবাসের দিকে পাথর ছোড়েন ইরানপন্থী বিক্ষোভকারীরা।

ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলার পর ইরানঘনিষ্ঠ মিলিশিয়ার নেতৃত্বাধীন এ বিক্ষোভ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পররাষ্ট্র নীতির ক্ষেত্রে নতুন চ্যালেঞ্জ হয়ে হাজির হয়েছে বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা। দূতাবাসে হামলার পরপরই ট্রাম্প এ ঘটনার জন্য ইরানকে দায়ী করে পাল্টা পদক্ষেপ নেয়ার হুমকি দিয়েছিলেন।

নববর্ষের সন্ধ্যায় টুইটে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, যে কোনো ধরনের ক্ষয়ক্ষতি কিংবা প্রাণহানির জন্য ইরানকে বড় ধরনের মূল্য দিতে হবে। এটা কোনো সতর্কবার্তা নয়, হুমকি। যদিও পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথোপকথনে তেহরানের সঙ্গে যুদ্ধে জড়ানোর ইচ্ছা নেই বলেও জানিয়েছেন তিনি।

মার্কিন দূতাবাসে ইরাকি বিক্ষোভকারীদের হামলা-ভাংচুরের ঘটনায়ও তাদের কোনো ধরনের সংশ্লিষ্টতা নেই বলে জানিয়েছে ইরান।

এরপর মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার ইরাকের ওই অঞ্চলে তাৎক্ষণিকভাবে আরও সাড়ে সাতশ’ সৈন্য মোতায়েন করা হবে বলে ঘোষণা দেন।

Comments

Comments!

 Natunsokal.com

ইরাকে আরও সৈন্য পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

বুধবার, জানুয়ারি ১, ২০২০ ১০:৪৪ অপরাহ্ণ | আপডেটঃ জানুয়ারি ০১, ২০২০ ১১:৩৩ অপরাহ্ণ

ইরাকে মার্কিন দূতাবাসে হামলা-ভাংচুর এবং নিরাপত্তা চৌকিতে অগ্নিসংযোগের পর দেশটিতে আরও সৈন্য পাঠানোর ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার ইরাকে তাৎক্ষণিকভাবে আরও সাড়ে সাতশ’ সৈন্য মোতায়েন করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

এক বিবৃতিতে প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘মার্কিন স্থাপনা ও কর্মকর্তাদের ওপর হুমকির মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে যথোপযুক্তভাবেই এই অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করা হচ্ছে।’

নিরাপত্তার জন্য পাঠানো অতিরিক্ত সেনারা কয়েক দিনের মধ্যেই দেশটিতে পৌঁছাবেন বলে জানিয়েছে পেন্টাগন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মার্কিন কর্মকর্তা জানান, প্রাথমিকভাবে কুয়েত থেকে সাড়ে সাতশ’ সেনা ইরাকে পাঠানো হবে। সামনের দিনগুলোতে ওই অঞ্চলে চার হাজারের মতো সৈন্য পাঠানোরও প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

ইরাকে এখনি পাঁচ হাজারের বেশি মার্কিন সেনা অবস্থান করছে।

রোববার ইরাকে ইরান-সমর্থিত মিলিশিয়াদের ওপর মার্কিন বিমান হামলায় ২৫ জন নিহতের জেরে মঙ্গলবার মার্কিন দূতাবাসে হামলা চালায় ক্ষুব্ধ একদল বিক্ষোভকারী।

মঙ্গলবার বিক্ষোভকারীরা মার্কিন দূতাবাস লক্ষ্য করে পাথর ছুড়েছে। দূতাবাসের নিরাপত্তা কর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষেও জড়িয়েছিল বলে জানিয়েছে রয়টার্স। দ্বিতীয় দিনের মতো বুধবারও দূতাবাসের সামনে যুক্তরাষ্ট্রের পতাকায় আগুন লাগায় এবং দূতাবাসের দিকে পাথর ছোড়েন ইরানপন্থী বিক্ষোভকারীরা।

ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলার পর ইরানঘনিষ্ঠ মিলিশিয়ার নেতৃত্বাধীন এ বিক্ষোভ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পররাষ্ট্র নীতির ক্ষেত্রে নতুন চ্যালেঞ্জ হয়ে হাজির হয়েছে বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা। দূতাবাসে হামলার পরপরই ট্রাম্প এ ঘটনার জন্য ইরানকে দায়ী করে পাল্টা পদক্ষেপ নেয়ার হুমকি দিয়েছিলেন।

নববর্ষের সন্ধ্যায় টুইটে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, যে কোনো ধরনের ক্ষয়ক্ষতি কিংবা প্রাণহানির জন্য ইরানকে বড় ধরনের মূল্য দিতে হবে। এটা কোনো সতর্কবার্তা নয়, হুমকি। যদিও পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথোপকথনে তেহরানের সঙ্গে যুদ্ধে জড়ানোর ইচ্ছা নেই বলেও জানিয়েছেন তিনি।

মার্কিন দূতাবাসে ইরাকি বিক্ষোভকারীদের হামলা-ভাংচুরের ঘটনায়ও তাদের কোনো ধরনের সংশ্লিষ্টতা নেই বলে জানিয়েছে ইরান।

এরপর মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার ইরাকের ওই অঞ্চলে তাৎক্ষণিকভাবে আরও সাড়ে সাতশ’ সৈন্য মোতায়েন করা হবে বলে ঘোষণা দেন।

Please follow and like us:
error0

Comments

comments

X
error