শুক্রবার, ১৬ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং
শিরোনাম
  • **কাসেম সোলেমানির ঘনিষ্ঠ স্থানীয় কমান্ডার আব্দেলহোসেইন মোজাদ্দামিকে বুধবার তার বাসার সামনে গুলি করে হত্যা করেছে দুই মুখোশধারী**রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় মিয়ানমারকে জরুরি ভিত্তিতে চার দফা অন্তর্বর্তীকালীন পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস (আইসিজে)** রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সংবিধান আমূল পরিবর্তনের প্রস্তাব প্রাথমিকভাবে সমর্থন করেছে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ স্টেট দুমা** রুট 19 এর নাম বদলে গভর্নর ফিল মারফি মঙ্গলবার বিল প্যাসক্রেলের নামে সড়ক নামকরণের একটি বিলে স্বাক্ষর করেছেন** প্যাটারসনে মেইন স্ট্রিটে পীষ্ঠ হয়ে ৬১ বছর বয়সী ব্যক্তির মৃত্যু** ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের বিরুদ্ধে হলফনামায় সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে ব্যবস্থা চেয়েছেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক**
সোমবার, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৯ ৩:০২ পূর্বাহ্ণ
A- A A+ Print

বলিউড অভিনেতা ফারহান আখতার ‘রাষ্ট্রদ্রোহী’

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদী বিক্ষোভে উত্তাল ভারত। এদিকে, এই পরিস্থিতিতে মুম্বাইয়ে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদী মিছিলে অংশ নিয়েছিলেন বলিউড অভিনেতা ফারহান আখতার। সরব হয়েছিলেন টুইটেও। এর জেরে 'রাষ্ট্রদ্রোহী'র তকমা সেঁটে থানায় অভিযোগ দায়ের হলো অভিনেতা ফারহান আখতারের বিরুদ্ধে। অভিযোগকারী আইনজীবী হিন্দু সংগঠনের সভাপতি।

১৮ ডিসেম্বরের কথা। টুইটারে প্রতিবাদী আন্দোলনের ডাক দিয়েছিলেন বলিউড অভিনেতা ফারহান আখতার। কোনও রকম রাখঢাক না করে সোজাসুজি লিখেছিলেন, 'সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখালেখি করে প্রতিবাদের দিন ফুরিয়েছে, এবার রাস্তায় নামুন'। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে একদিকে যখন উত্তাল ভারত, বলিউড পাড়ার ডাকসাইটে ক'জন অভিনেতা ভাবলেশহীন। যার জন্য নেটদুনিয়ায় কটাক্ষের শিকারও হতে হয়েছে তাঁদের। তবে সে পথে হাঁটেননি ফারহান। বরাবরের মতো সরকারের সমালোচনা করে সিএএ, এনআরসি বিরোধী প্রতিবাদী আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন। যার জেরে সন্দীপ মিত্তাল নামে মুম্বাইয়ের এক পুলিশ কর্মকর্তা হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন এই অভিনেতাকে। এবার সরাসরি পুলিশে অভিযোগ দায়ের হলো ফারহানের বিরুদ্ধে।

'রাষ্ট্রদ্রোহী' মন্তব্য করার অভিযোগ তুলে ফারহান আখতারের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছেন করণাসাগর কাশিমসেট্টি নামে জনৈক আইনজীবী। এই অভিনেতার বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন গোষ্ঠীকে উসকানি দেওয়ার অভিযোগও তুলেছেন ওই আইনজীবী। ১৮ ডিসেম্বর ফারহানের করা টুইটে একটি ছবি ছিল। যাতে সিএএ এবং এনআরসি'র বিরুদ্ধে কেন প্রতিবাদ করা হচ্ছে, সে সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য ছিল। ফারহানের পোস্টে সর্ব ধর্ম সমন্বয়ের এক প্রতীকও ছিল। এতেই গন্ডগোলের সূত্রপাত।

করণাসাগর কাশিমসেট্টির অভিযোগ, ফারহান তাঁর টুইটে মুসলিম, দলিত, রূপান্তরকামী, নাস্তিকদের দেশের বিরুদ্ধে উসকে দিয়েছেন। ফারহানের মন্তব্য দেশের বিভিন্ন গোষ্ঠীর মধ্যে শত্রুতা ডেকে আনতে পারে। দাঙ্গা বাঁধাতে পারে। তাই এই অভিযোগ দায়ের হয়েছে বলে জানা গেছে সাইদাবাদ পুলিশ স্টেশন সূত্রে।

অভিযোগে বলা হয়েছে, আমি আমার টুইটার অ্যাকাউন্ট ব্রাউজ করার সময়ে ফারহান আখতারের করা ১৮ ডিসেম্বরের টুইটটি দেখতে পাই। সেখানে স্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে যে, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনে অমানবিকভাবে মুসলিম, ভূমিহীন দলিত, রূপান্তরকামী এবং যাদের নথিপত্র নেই এমন মানুষদের দেশের নাগরিক হিসেবে গণ্য করা হবে না। তাঁদের জেলে ঢোকানো হতে পারে কিংবা দেশের বাইরে বের করে দেওয়া হতে পারে। যেসব কথা উসকানিমূলক এবং জনগণের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করার জন্য যথেষ্ট। ফারহান এটা ইচ্ছাকৃতভাবে করেছেন এবং তারপর দেশের বিভিন্ন জায়গায় কয়েকটি বিক্ষোভও হয়েছে। যাতে সরকারি সম্পত্তির মারাত্মক নষ্ট হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সিএএ-এর বিরুদ্ধে সরব হয়ে টুইটারে মোদি-শাহ বিরোধী মন্তব্য করার জন্য সদ্য অভিযোগ দায়ের হয়েছে খ্যাতনামা তামিল অভিনেতা সিদ্ধার্থের নামে। যে তালিকায় রয়েছেন দ্রাবিড়ভূমের গায়ক টিএম কৃষ্ণসহ অনেকেই।

Comments

Comments!

 Natunsokal.com

বলিউড অভিনেতা ফারহান আখতার ‘রাষ্ট্রদ্রোহী’

সোমবার, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৯ ৩:০২ পূর্বাহ্ণ

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদী বিক্ষোভে উত্তাল ভারত। এদিকে, এই পরিস্থিতিতে মুম্বাইয়ে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদী মিছিলে অংশ নিয়েছিলেন বলিউড অভিনেতা ফারহান আখতার। সরব হয়েছিলেন টুইটেও। এর জেরে ‘রাষ্ট্রদ্রোহী’র তকমা সেঁটে থানায় অভিযোগ দায়ের হলো অভিনেতা ফারহান আখতারের বিরুদ্ধে। অভিযোগকারী আইনজীবী হিন্দু সংগঠনের সভাপতি।

১৮ ডিসেম্বরের কথা। টুইটারে প্রতিবাদী আন্দোলনের ডাক দিয়েছিলেন বলিউড অভিনেতা ফারহান আখতার। কোনও রকম রাখঢাক না করে সোজাসুজি লিখেছিলেন, ‘সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখালেখি করে প্রতিবাদের দিন ফুরিয়েছে, এবার রাস্তায় নামুন’। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে একদিকে যখন উত্তাল ভারত, বলিউড পাড়ার ডাকসাইটে ক’জন অভিনেতা ভাবলেশহীন। যার জন্য নেটদুনিয়ায় কটাক্ষের শিকারও হতে হয়েছে তাঁদের। তবে সে পথে হাঁটেননি ফারহান। বরাবরের মতো সরকারের সমালোচনা করে সিএএ, এনআরসি বিরোধী প্রতিবাদী আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন। যার জেরে সন্দীপ মিত্তাল নামে মুম্বাইয়ের এক পুলিশ কর্মকর্তা হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন এই অভিনেতাকে। এবার সরাসরি পুলিশে অভিযোগ দায়ের হলো ফারহানের বিরুদ্ধে।

‘রাষ্ট্রদ্রোহী’ মন্তব্য করার অভিযোগ তুলে ফারহান আখতারের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছেন করণাসাগর কাশিমসেট্টি নামে জনৈক আইনজীবী। এই অভিনেতার বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন গোষ্ঠীকে উসকানি দেওয়ার অভিযোগও তুলেছেন ওই আইনজীবী। ১৮ ডিসেম্বর ফারহানের করা টুইটে একটি ছবি ছিল। যাতে সিএএ এবং এনআরসি’র বিরুদ্ধে কেন প্রতিবাদ করা হচ্ছে, সে সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য ছিল। ফারহানের পোস্টে সর্ব ধর্ম সমন্বয়ের এক প্রতীকও ছিল। এতেই গন্ডগোলের সূত্রপাত।

করণাসাগর কাশিমসেট্টির অভিযোগ, ফারহান তাঁর টুইটে মুসলিম, দলিত, রূপান্তরকামী, নাস্তিকদের দেশের বিরুদ্ধে উসকে দিয়েছেন। ফারহানের মন্তব্য দেশের বিভিন্ন গোষ্ঠীর মধ্যে শত্রুতা ডেকে আনতে পারে। দাঙ্গা বাঁধাতে পারে। তাই এই অভিযোগ দায়ের হয়েছে বলে জানা গেছে সাইদাবাদ পুলিশ স্টেশন সূত্রে।

অভিযোগে বলা হয়েছে, আমি আমার টুইটার অ্যাকাউন্ট ব্রাউজ করার সময়ে ফারহান আখতারের করা ১৮ ডিসেম্বরের টুইটটি দেখতে পাই। সেখানে স্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে যে, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনে অমানবিকভাবে মুসলিম, ভূমিহীন দলিত, রূপান্তরকামী এবং যাদের নথিপত্র নেই এমন মানুষদের দেশের নাগরিক হিসেবে গণ্য করা হবে না। তাঁদের জেলে ঢোকানো হতে পারে কিংবা দেশের বাইরে বের করে দেওয়া হতে পারে। যেসব কথা উসকানিমূলক এবং জনগণের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করার জন্য যথেষ্ট। ফারহান এটা ইচ্ছাকৃতভাবে করেছেন এবং তারপর দেশের বিভিন্ন জায়গায় কয়েকটি বিক্ষোভও হয়েছে। যাতে সরকারি সম্পত্তির মারাত্মক নষ্ট হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সিএএ-এর বিরুদ্ধে সরব হয়ে টুইটারে মোদি-শাহ বিরোধী মন্তব্য করার জন্য সদ্য অভিযোগ দায়ের হয়েছে খ্যাতনামা তামিল অভিনেতা সিদ্ধার্থের নামে। যে তালিকায় রয়েছেন দ্রাবিড়ভূমের গায়ক টিএম কৃষ্ণসহ অনেকেই।

Please follow and like us:
error0

Comments

comments

X
error