শনিবার, ১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং
শিরোনাম
  • **কাসেম সোলেমানির ঘনিষ্ঠ স্থানীয় কমান্ডার আব্দেলহোসেইন মোজাদ্দামিকে বুধবার তার বাসার সামনে গুলি করে হত্যা করেছে দুই মুখোশধারী**রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় মিয়ানমারকে জরুরি ভিত্তিতে চার দফা অন্তর্বর্তীকালীন পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস (আইসিজে)** রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সংবিধান আমূল পরিবর্তনের প্রস্তাব প্রাথমিকভাবে সমর্থন করেছে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ স্টেট দুমা** রুট 19 এর নাম বদলে গভর্নর ফিল মারফি মঙ্গলবার বিল প্যাসক্রেলের নামে সড়ক নামকরণের একটি বিলে স্বাক্ষর করেছেন** প্যাটারসনে মেইন স্ট্রিটে পীষ্ঠ হয়ে ৬১ বছর বয়সী ব্যক্তির মৃত্যু** ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের বিরুদ্ধে হলফনামায় সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে ব্যবস্থা চেয়েছেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক**
শনিবার, নভেম্বর ২৩, ২০১৯ ১:০৫ পূর্বাহ্ণ
A- A A+ Print

বিশ্বজুড়ে শিশুরা শারীরিক অনুশীলন বিমুখ

১১ থেকে ১৭ বছরের শিশু-কিশোরদের পাঁচ জনের চারজনই যথেষ্ট শারীরিক অনুশীলন করছে না। শিশুদের শরীরচর্চা নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) এই প্রথম একটি বিশ্লেষণে এমন তথ্য উঠে এসেছে। এতে শিশুদের স্বাস্থ্য যেমন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে তেমনি তাদের মস্তিষ্কের বিকাশ এবং সামাজিক দক্ষতা অর্জনও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

ডব্লিউএইচও’র সুপারিশ করা রোজ এক ঘন্টার ব্যায়াম করতেই ব্যর্থ হচ্ছে ধনী ও গরিব সব দেশের শিশুরাই।

সমীক্ষা চালানো ১৪৬টি দেশের শিশুদের মধ্যে দেখা গেছে, মাত্র চারটি দেশ ছাড়া আর সব দেশেই মেয়ে শিশুর চেয়ে ছেলে শিশুরা বেশি সক্রিয়।

বিবিসি জানায়, শারীরিক চর্চার ক্ষেত্রে ডব্লিউএইচও ওইসব কাজ বিবেচনায় নিয়েছে যার মধ্য দিয়ে হৃদস্পন্দন দ্রুত হয় এবং দেহ যথেষ্ট অক্সিজেন পেতে পারে। যেমন, দৌড়ানো, সাইকেল চালানো, সাঁতরানো, ফুটবল খেলা, লাফানো জিমন্যাস্টিক প্রভৃতি।

ডব্লিউএইচও’র লক্ষ্য ছিল, দিনে ৬০ মিনিট মাঝারি থেকে কঠিন ব্যায়াম। সংস্থার ডা. ফিওনা বুল বলছেন, আমি মনে করি না এটি অসম্ভব কোনো টার্গেট।

প্রমাণ আছে যে, এতে করে শারীরিক ও মস্তিষ্কর উন্নয়ন ঘটে। মাঝারি ও কঠিন ব্যায়ামের পার্থক্য হচ্ছে, মাঝারি ব্যায়ামের সময় অন্য কাজ কিংবা কথা চালানো যায়, কিন্তু কঠিন ব্যায়ামের সময় তা সম্ভব না।

Comments

Comments!

 Natunsokal.com

বিশ্বজুড়ে শিশুরা শারীরিক অনুশীলন বিমুখ

শনিবার, নভেম্বর ২৩, ২০১৯ ১:০৫ পূর্বাহ্ণ

১১ থেকে ১৭ বছরের শিশু-কিশোরদের পাঁচ জনের চারজনই যথেষ্ট শারীরিক অনুশীলন করছে না। শিশুদের শরীরচর্চা নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) এই প্রথম একটি বিশ্লেষণে এমন তথ্য উঠে এসেছে। এতে শিশুদের স্বাস্থ্য যেমন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে তেমনি তাদের মস্তিষ্কের বিকাশ এবং সামাজিক দক্ষতা অর্জনও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

ডব্লিউএইচও’র সুপারিশ করা রোজ এক ঘন্টার ব্যায়াম করতেই ব্যর্থ হচ্ছে ধনী ও গরিব সব দেশের শিশুরাই।

সমীক্ষা চালানো ১৪৬টি দেশের শিশুদের মধ্যে দেখা গেছে, মাত্র চারটি দেশ ছাড়া আর সব দেশেই মেয়ে শিশুর চেয়ে ছেলে শিশুরা বেশি সক্রিয়।

বিবিসি জানায়, শারীরিক চর্চার ক্ষেত্রে ডব্লিউএইচও ওইসব কাজ বিবেচনায় নিয়েছে যার মধ্য দিয়ে হৃদস্পন্দন দ্রুত হয় এবং দেহ যথেষ্ট অক্সিজেন পেতে পারে। যেমন, দৌড়ানো, সাইকেল চালানো, সাঁতরানো, ফুটবল খেলা, লাফানো জিমন্যাস্টিক প্রভৃতি।

ডব্লিউএইচও’র লক্ষ্য ছিল, দিনে ৬০ মিনিট মাঝারি থেকে কঠিন ব্যায়াম। সংস্থার ডা. ফিওনা বুল বলছেন, আমি মনে করি না এটি অসম্ভব কোনো টার্গেট।

প্রমাণ আছে যে, এতে করে শারীরিক ও মস্তিষ্কর উন্নয়ন ঘটে। মাঝারি ও কঠিন ব্যায়ামের পার্থক্য হচ্ছে, মাঝারি ব্যায়ামের সময় অন্য কাজ কিংবা কথা চালানো যায়, কিন্তু কঠিন ব্যায়ামের সময় তা সম্ভব না।

Please follow and like us:
error0

Comments

comments

X
error