২৮শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, রাত ১২:২৮, শনিবার

  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
“লিভ টু আপিল” খারিজ; ডা. জোবায়দা রহমানের বিরুদ্ধে মামলা চলবে
রিপোর্টারের নাম / ১০৮ বার
আপডেট সময় শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩

জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলা বাতিলে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবায়দা রহমানের আবেদন খারিজ করে হাইকোর্টের দেওয়া রায় বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। মামলাটি বাতিলের আবেদন খারিজ করে হাই কোর্টের দেওয়া রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের আবেদন (লিভ টু আপিল) করেছিলেন গত এক যুগের বেশি সময় ধরে স্বামীর সঙ্গে যুক্তরাজ্যে থাকা জোবাইদা। বুধবার প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন।

আদালতে জোবাইদার পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী ও রুহুল কুদ্দুস কাজল। দুদকের পক্ষে ছিলেন মো. খুরশিদ আলম খান। তিনি বলেন, আবেদনটি খারিজ হওয়ায় জোবাইদা রহমানের বিরুদ্ধে মামলাটি চলতে আইনি কোনো বাধা নেই। মামলাটি চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বিচারাধীন।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বড় ছেলে তারেক রহমান, তার স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমান ও শাশুড়ি সৈয়দা ইকবাল মান্দ বানুর বিরুদ্ধে চার কোটি ৮১ লাখ ৫৩ হাজার ৫৬১ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন ও মিথ্যা তথ্য দেওয়ার অভিযোগে ২০০৭ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর কাফরুল থানায় এ মামলা দায়ের করে দুদক। মামলায় তারেক রহমানকে সহায়তা ও তথ্য গোপনের অভিযোগ আনা হয় জোবাইদা ও তার মায়ের বিরুদ্ধে।

সেখানে বলা হয়, তারেক তার স্ত্রীর নামে ৩৫ লাখ টাকার দুটি এফডিআর করে দেন। এভাবে জোবাইদা তার স্বামীকে অবৈধ সম্পদ অর্জনে সহায়তা করেছেন। ২০০৮ সালের ৩১ মার্চ এ মামলায় অভিযোগপত্র দেয় দুর্নীতি দমন কমিশন। এর পর জোবাইদা রহমানের মামলা বাতিলের আবেদনে হাইকোর্ট মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে রুল দেন। ওই রুল শুনানির জন্য ২০১৬ সালে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চে তোলা হলে বিচারক বিব্রতবোধ করেন। পরে প্রধান বিচারপতি মামলাটি নিষ্পত্তির জন্য বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথের হাইকোর্ট বেঞ্চে পাঠান।

সেখানে রুল শুনানির পর আদালত ২০১৭ সালের ১০ জানুয়ারি বিষয়টি রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ রাখেন। পরে ওই বছরের ১২ এপ্রিল মামলাটির বাতিল প্রশ্নে জারি করা রুল খারিজ করে রায় দেন হাইকোর্ট। তাতে মামলা চলার বাধা কাটে। আট সপ্তাহের মধ্যে জোবাইদা রহমানকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশও দেওয়া হয় রায়ে। সেই রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন করেন জোবাইদা রহমান, যার শুনানি শেষে বিষয়টি এখন আদেশের জন্য অপেক্ষমাণ।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
https://slotbet.online/